কম দামে ভালো ফোন গুলোর তালিকা। জেনে নিন

আসসালামু আলাইকুম। এই আর্টিকেলে আমি কম দামে ভালো ফোন গুলোর তালিকা নিয়ে বিশদ ভাবে আলোচনা করবো।কম দামে ভালো ফোন কে বা না চায়। যারা  পেতে চান তাদের জন্য এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে।

এছাড়াও যারা কম দামে ভালো গেমিং ফোন এবং vivo কম দামে ভালো ফোন কিনতে চান তাদের জন্য আজকের এই পোষ্টটি লিখা হয়েছে।

 কম দামে ফোন কিনার জন্য যা জানা জরুরীঃ

আসলে কম দামে ভালো একটা ফোন কিনা মানে এই নয় যে আমি দামি ফোন গুলোর চেয়ে ভালো কিছু কিনে ফেলছি। হ্যা ভাই এটাই বাস্তবতা। হয়তো আপনি কম টাকায় দামি ফোন গুলোর চেয়ে ভালো কিছু কিনতে পারবেন না।

কিন্তু এটা সত্য যে আপনার কম দামের ভালো ফোনটি তাদের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করতে পারবে । দামি ফোন নামেও যেমন দামি কাজেও তেমন দামি।

হয়তো কোনো কোনো কম্পানী ঠিক ভাবে সার্ভিস দিতে পারে না কিন্তু এটা মানতে হবে যে দামি ফোন গুলোতে একটা না একটা ভালো ফিচার থাকবেই।

কম দামে ভালো ফোন পাওয়া যায় কি?

হ্যা অবশ্যই। কম দামে আপনি ভালো ফোন অবশ্যই পাবেন। তবে একজন সাধারণ মানুষের পক্ষে এতো ফোনের মধ্যে স্বল্প মূল্যের ভালো ফোন খোজা খুব কঠিন।

তাই আমরা সবচেয়ে কম দামে স্মার্টফোন গুলোর তালিকা প্রকাশ করতে যাচ্ছি। আসলে কম দামের যেকোন ফোনে আপনি সবগুলো ফিচার ভালো ভাবে পাবেন না।

হয়তো কোনো ফোনের র‍্যাম-রম বেশী পাবেন। আবার কোনো ফোনের ক্যামেরা কিংবা ব্যাটারী ভালো পেতে পারেন।

আবার কোনো ফোনের গেমিং ফিচার গুলো ভালো পেতে পারেন। সব মিলিয়ে আমরা কিছু ফোন এর ফিচার তুলে ধরব।

এখন আপনি যদি গেম খেলেন তাহলে গেমিং ফোন নিবেন। আর ইন্টারনেট ব্রাউজ করলে যে ফোন গুলোর র‍্যাম-রম বেশী থাকে সেই ফোন গুলো নিবেন।

তো চলুন শুরু করা যাক।

কম দামের ভালো কিছু ফোন

Infinix hot 9 play

কম দামে ভালো ফোন
Infinix hot 9 play

আমার তালিকায় এই ফোন টিকে আমি সবার আগে রাখলাম। কেনোনা এই ফোন নিয়ে সবার কৌতুহলের শেষ নেই। এমনকি আমারো কৌতুহল জাগে যে এতো এত কম দামে ভালো ফিচার ? আসলেই কি সম্ভব?

আমি খোজ নিয়ে দেখেছি। ফোন গুলো অনেকদিন যাবত খুব ভালো ভাবেই চলছে। infinix hot 9 play মোবাইল গুলো আপনি দুইটি মডেলে পবেন।

কারণ একটির র‍্যাম রম ৩/৩২ জিবি। আরেকটির র‍্যাম রম ৪/৬৪। র‍্যাম রম এর ভিন্নতার কারণে এদের দামেরও ভিন্নতা আছে। infinix hot 9 play (3/32 GB) এর অফিসিয়াল দাম ৭৯৯০ টাকা।

আর infinix hot 9 play(4/64 GB) এর অফিসিয়াল দাম ৯৯৯০ টাকা। এগুলো অফিসিয়াল বাংলাদেশী দাম। দুটি মডেলের ফোনের ব্যাটারী ও স্ক্রীন একই এবং বড় মাপের। তাছাড়া এই ফোনে ফিনগার প্রিন্ট ও আছে। নিচে কিছু ফিচার তুলে ধরা হলো।

 

  • ব্যাটারীঃ ৬০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী।
  • ক্যামেরাঃ ১৩ মেগ পিক্সেলস (পেছন)+ ৮ মেগাপিক্সেল (সামনে)
  • প্রোসেসরঃ octa core 1.8 GHz
  • স্ক্রিন সাইজঃ ৬.৮২ ইঞ্চি।
  • ইউএসবি, ওটিজিঃ সাপোর্টেড।
  • ফিনগার প্রিন্টঃ সাপোর্টেড।
  • নেটওয়ার্ক টাইপঃ২ জি, ৩ জি, ৪ জি।
  • এন্ড্রোয়েড ভারসনঃ এন্ড্রোয়েড 10।
  • ওজনঃ ২০৯ গ্রাম।

Techno spark 6 Air

কম দামে টেকনো ফোন

আমার তালিকায় দ্বিতীয় নাম্বার ফোন এটি। এই ফোনের দাম আগের ফোনটির দামের তুলোনায় কিছু কম। এটিও দুটি মডেলে পাওয়া যায়। তবে আমরা যে মডেন্টির র‍্যাম রাম (৩/৬৪ জিবি) সেটা নিয়ে আলোচনা করবো।

এই ফোনটির সবচেয়ে ভালো এবং চমতকার বিষয় হলো এর ডিসপ্লে অন্যান্য ফোন থেকে অনেক বড়। এই ফোন গুলোর ডিসপ্লে হচ্ছে ৭ ইঞ্চি।

সাথে রয়েছে ৩ জিবি র‍্যামের সাথে ৬৪ জিবি রম। সাধারণত ৪ জিবি র‍্যাম যুক্ত ফোন গুলোর সাথে ৬৪ জিবি ফোন মেমোরী পাওয়া যায়। কিন্তু আপনি এত কম দামে ৩ জিবি র‍্যামের ফোনের সাথে ৬৪ জিবি রম পাচ্ছেন।

কম দামে ভালো ফোন বলতে এগুলোকেই বুঝায়। নিচে এই ফোন সম্পর্কে আরো কিছু ফিচার তুলে ধরা হলো। 

  • ব্যাটারীঃ ৬০০০ এম্মপিয়ার।
  • সস্ক্রিন সাইজঃ ৭ ইঞ্চি।
  • প্রোসেসরঃ ১.৮ গিগাহার্টজ (octa-core)
  • ক্যামেরাঃ১৩ + ২ মেগাপিক্সেল + al lens
  • ফিনগার প্রিন্টঃ সাপোর্টেড
  • ফেস আনলকঃ সাপোর্টেড
  • নেটওয়ার্ক টাইপঃ ২জি, ৩ জি,৪ জি।
  • এন্ড্রোয়েড ভারসনঃ এন্ড্রোয়েড 10
  • ইউএসবি ও ওটিজিঃ সাপোর্টেড
  • কালারঃ comet black, cloud white, ocean blue 

Vivo y15s

vivo কম দামে ভালো ফোন
vivo y15s

তালিকায় এই ফোনটিকে রাখার কারণ হলো এর প্রোসেসর। আপনি একে গেমিং ফোন ও বলতে

পারেন।vivo y15s ফোনটির প্রসেসর ২.৩ গিগাহার্জ যা অনেক উন্নতমানের। যেহেতু ফোনটির দাম অন্যান্য ফোনগুলোর দাম থেকে তুলোনামুলক একটু বেশী তবুও এটির ফিচার আপনাকে আকর্ষণ করবে।

এছাড়াও এর রয়েছে অতি উন্নতমানের ইউএসবি ও জিপিএস সিস্টেম এবং আছে reverse charging সিস্টেম। আরো রয়েছে সাইড মাউন্টেড ফিনগারপ্রিন্ট এবং ফোনটির ওজন অনেক কম ।

সব মিলিয়ে আমাকে ফোনটি অত্যন্ত চমচকার লেগেছে।এর দাম 10000 টাকা। নিচে ফোনটির আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার তুলে ধরা হলো।

  • ব্যাট্যারীঃ ৫০০০ এম্পিয়ার (lithiam-polymer, non removal)
  • প্রোসেসরঃ ২.৩ GHz octa core
  • রমঃ ৩২ জিবি (eMMc 5.1)
  • ক্যামেরাঃ ১৩+ 2 মেগাপিক্সেল (পেছনে) / অটোফোকাস, ৮ মেগাপিক্সেল (সামনে)
  • ডিসপ্লে সাইজঃ ৬.৫১ ইঞ্চি।
  • ওজনঃ ১৭৯ গ্রাম।
  • নেটোয়ার্ক টাইপঃ ২জি, ৩জি, ৪জি।
  • ইউএসবি ও ওটিজিঃ সাপোর্টেড
  • কালারঃ wave green, mystic blue
  • ফিনগারপ্রিন্টঃ সাপোর্টেড (side-mounted)

Read more

 

Infinix hot 11 play 

আমাদের তালিকায় আরো একটি ইনফিনিক্স ফোন নিয়ে আসলাম আমি। এটি পুরো ভিন্ন স্টাইলের একটি ফোন। আমি বলি কি কাম দামে ভালো ফোন চান ইনফিনিক্স ফোন কিনুন৷ কেনোনা এদের ফিচারগূলো এত সুন্দর তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

এর ইন্টারনাল মেমোরি মানুষকে সবার আগে নজর কাড়ে। আমি ৪ জিবি র‍্যামের ফোনে মাত্র ৬৪ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি পাই আর ওরা ইনফিনিক্স ফোনে ৪ জিবি র‍্যামে ১২৮ জিবি রম দিয়ে বসে আছে।  

এই জন্যেই আমি ইনফিনক্স কে ব্যাতিক্রম ধর্মী ফোন বলি৷ এছাড়া infinix hot 10 er রয়েছে আকর্ষণীয় মূল্য। এর দাম ১২৯৯০ টাকা (বাংলাদেশি অফিশিয়াল)। 

এটি এরো একটি ক্ষেত্রে জনপ্রিয় সেটা হলো এর কালার। প্রায় চারটি আকর্ষণীয় রঙে পাওয়া যাচ্ছে এই ফোন। নিচে এই ফোনের গুরুত্বপূর্ণ কিছু ফিচার তুলে ধরা হলো।(ফেসবুক)

  • ব্যাটারিঃ ৬০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারি।
  • প্রোসেসরঃ ফোনটির প্রোসেসর ২.৩ GHz (octa-core)
  • র‍্যাম-রমঃ ফোনটির র‍্যাম ৪ জিবি রম ১২৮ জিবি।
  • ক্যামেরাঃ ফোনটির ক্যামেরা 13 মেগাপিক্সেল + (wide ai)
  • ডিসপ্লেঃ ফোনটির ডিসপ্লে সাইজ ৬.৮২ ইঞ্চি।
  • ইউএসবি ও ওটিজিঃ সাপোর্টেড
  • চার্জিং গতিঃ ১০ ওয়াট।
  • কালারঃ green,gold,blue,black

 

Samsung Galaxy M02 

আমাদের তালিকায় এই ফোনটিকে পঞ্চম স্থানে রাখলাম। samsung ফোন কম দামে পাওয়া যায় খুব কম। কিন্তু এই ফোনটি কম দামে পাওয়া যাচ্ছে তার উপর এটি একগাদা ফিচার সংযুক্ত করা আছে।

আমাকে ব্যাক্তিগতভাবে এই ফোনটি অনেক ভালো লাগে। যেহেতু এটা স্যামসাং ফোন তাই এখানে সফটওয়্যার আপডেট এর কোনো সমস্যা নাই।এই ফোনটি দুটি মডেলে পাওয়া যাচ্ছে।

একটির র‍্যাম-রম ২/৩২ জিবি আরেকটির র‍্যাম-রম হচ্ছে ৩/৩২ জিবি। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে আপনাকে ২/৩২ জিবি নেয়ার পরামর্শ দিব। যদি আপনার বাজেট বেশী থাকে তাহলে আপনি ৩/৩২ নিতে পারেন।

তবে যেহেতু আপনি কম দামে ভালো ফোন চাচ্ছেন তাই আপনার জন্য ২/৩২ নেয়াটা ভালো হবে। এর কারণ এই Samsung Galaxy M02 ফোন এর দুটো মডেলেই একই ফিচার অরদান করে।

এর ২/৩২ জিবি র‍্যাম-রমের দাম হচ্ছে ৮৫৯৯ টাকা এবং ৩/৩২ জিবি র‍্যাম রমের দাম হচ্ছে ৯৯৯৯ টাকা। নিচে এই দুটি মডেলের কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার দেয়া হলো।

  • ব্যাটারীঃ এই ফোনের ব্যাটারী হচ্ছে ৫০০০ এম্পিয়ার (non-removal)
  • প্রোসেসরঃ এই ফোনের প্রোসেসর ১.৩ GHz
  • ডিসপ্লেঃ এর ডিসপ্লে মোটামুটি অনেক বড় (৬.৫ ইঞ্চি)
  • ক্যামেরাঃ এর পেছনের ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল + ২ মেগাপিক্সেল। এবং পেছনের ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল।
  • ইউএসবি ও জিপিএসঃ সাপোর্টেড।
  • এন্ড্রোয়েড ভারসনঃ এটি এন্ড্রোয়েড ভারসন 10 দ্বারা তৈরি। (one UI 2.0)

দূর্ভাগ্যজনকভাবে এই ফোনটিতে কোনো ফিনগারপ্রিন্ট নেই। কিন্তু এটাতে ফেস লক আছে।

  • কালারঃ এই ফোনটি চারটি আকর্ষণীয় রঙে পাওয়া যাচ্ছে। যথাক্রমে, black gray, blue, red

Oppo A12 

আমাদের তালিকায় আমরা এই oppo ফোনকে রাখলাম। oppo কম দামে ভালো ফোন খুজতে গেলে ঘুরে ফিরে আপনি এটাকেই পাবেন।

যদিও এটা ২০২০ সালের তৈরিকৃত মডেল। এর আগে এই ফোনের দাম ছিলো ১৯৯০ টাকা ছিলো। কিন্তু এখন তা পরিবর্তন করে ৯৯৯০ টাকায় আনা হয়েছে।

তবে এই ফোনের নতুন এক মডেল বের হয়েছে যার র‍্যাম-রম ৪/৬৪ জিবি এবং এর দাম ১৩৯৯০ টাকা, যা অনেক। আমি যে ফোনের কথা বলছি সেটা হচ্ছে ৩/৩২ জিবি র‍্যাম-রম ওয়ালা ফোন।

আমি আবারো বলছি এটির দাম বর্তমানে ৯৯৯০ টাকা।ফোনটিতে রয়েছে ফিনগারপ্রিন্ট, ভালো মানের প্রোসেসর যা কম দামের অন্য কোনো ফোনে নেই।

এর চিপসেট হলো ১২ ন্যানোমিটার। বুঝতেই পারছেন এর প্রোসেসর তাহলে কতো ভালো হবে। নিচে এই ফোনের বিস্তারিত ফিচার তুলে ধরা হলোঃ

  • প্রোসেসরঃ এ ফোনের প্রোসেসর ২.৩ GHz (octa-core)
  • র‍্যাম-রমঃ (২/৩২) আর (৪/৬৪) জিবি
  • ব্যাটারীঃ এই ফোনের ব্যাটারী হচ্ছে ৪২৩০ এম্পিয়ার (non-removal)
  • ডিসপ্লেঃ এই ফোনের ডিসপ্লে সাইজঃ ৬.২২ ইঞ্চি
  • নেটওয়ার্ক টাইপঃ ফোনটিতে সাপোর্ট করে ২জি, ৩জি,৪জি।
  • এন্ড্রোয়েড ভারসনঃ এন্ড্রোয়েড ৯.০ (ColorOs 6.1)
  • ইউএসবি ও ওটিজিঃ সাপোর্টেড।
  • ক্যামেরাঃ সামনের ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল এবং পেছনের ক্যামেরা ১৩+ ২ মেগাপিক্সেল।
  • ফোনের ওজনঃ এর ওজন ১৬৫ গ্রাম।

 

 গেমিং এর জন্য কাম দামে ভালো ফোন পাওয়া যায়?

অবশ্যই আপনি কম দামে ভালো ফোন কিনতে পারবেন। গেমিং ফোন হলে তো কথাই নাই। গেম খেলতে আমাদের অনেক স্টোরেজ এর দরকার হয়। তাই অধিকাংশ ছেলে মেয়ে বেশি র‍্যাম- রম এর ফোন কিনতে চায়।

আবার স্বভাবত বেশী র‍্যাম-রমের ফোনগুলোর দাম বেশী হয়। যেহেতু ছেলে মেয়েরা ইনকাম করতে পারে না তাই তাদের কম দামে ভালো গেমিং ফোন কিনতে হয়।

আজকে চমকপ্রদ কয়েকটি ফোন তুলে ধরবো এবং একটি কম্পানীর নাম বলবো যাদের থেকে কম দামে গেমিং ফোন কিনা যেতে পারে।

আরোও পড়ুন।

কোন ফোন গেমিং এর জন্য ভালো? 

গেমিং এর জন্য আমি সবসময় রিয়েলমি ও রেডমি ফোনের নাম বলবো। কেনোনা এদের প্রোসেসর এবং র‍্যাম-রম সবসময় বেশি থাকে এবং দামেও অনেক সাশ্রয়ী।

গেমিং এর জন্য আপনি realme 5i, realme c12,realme narzo 10, oppo A15s, samsung galaxy M02s ইত্যাদি কিনবেন অবশ্যই। এগুলো কম দামের অনেক ভালো মানের ফোন।

গেমিং এর জন্য আমি সবচেয়ে বেশী পছন্দ করি walton primo H9 ফোনটিকে। আপনি হয়তো ভাবছেন ওয়াল্টন ফোন আবার গেমিং এর জন্য, এটা কেমন কথা? ভাই আমি ওয়ালটন এক্সপেরিএন্সড।

ওদের সার্ভিস অনেক ভালো। আপনি ফোন কেনার সময় ফিচার না দেখে ফোন কিনলে তো ওরকম হবে। আমার দেখা কম দামে সবচেয়ে ভালো ফোন হচ্ছে এটি Walton primo H9।(ইউটিউব)

চলুন তালিকা নিয়ে বিস্তারিত বলি।

 

Walton primo H9

 

আমি আগেই বলেছি এটি আমার দেখা সবচেয়ে ভালো এবং কম দামের গেমিং ফোন। এজন্য আমি তালিকায় এটিকে প্রথম স্থানে রাখলাম।এর প্রকৃত দাম ৯৭৯৯ টাকা।

এর র‍্যাম হচ্ছে ৪ জিবি এবং রম হচ্ছে ৬৪ জিবি। আসল কৌতুহল এখানেই। মাত্র এই টাকাতেই এতো ভালো মানের ফোন পাওয়া যাচ্ছে।

আসলেই তাই, আপনার ফোন কেনার বাজেট কম থাকলে আপনি এই ফোনটি অবশ্যই কিনবেন। নিচে এর সম্পর্রকে বিস্তারিত দেয়া হলো।

  • প্রোসেসরঃ এর প্রোসেসর হচ্ছে 1.8 GHz Octa-Core, ARM Cortex-A53। এর সাথে রয়েছে MediaTek’s Helio A20 চিপসেট। (অসাধারণ)
  • ব্যাটারীঃ এর ব্যাটারি হচ্ছে ৪০০০ এম্পিয়ার।
  • ক্যামেরাঃ এর পিছনের ক্যামেরা হচ্ছে ১৩ মেগাপিক্সেলের তিনটি ক্যামেরা। সামনে আছে ৮ মেগাপিক্সেল এর full hd ক্যামেরা।
  • ফোনটিতে ফিনগারপ্রিন্ট আছে সহ।

Realme 5i

 

আমাদের গেমিং ফোনের তালিকায় এটাকে আমরা দ্বিতীয় স্থানে রাখলাম। এটি অনেক দিন ধরে ভালো সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। এর দাম বর্তমানে ১২৯৯০ টাকা। নিচে এর কিছু ফিচার দেয়া হলোঃ

  • প্রোসেসরঃ Octa-core (2.0 GHz) এবং সাথে আছে Qualcomm Snapdragon 665 (11 nm). এর চিপসেট।
  • লস্টোরেজঃ র‍্যাম ৪ জিবি রম ৬৪ জিবি।
  • ব্যাটারীঃ ফোনটির রয়েছে ৬০০০ এম্পিয়ার ব্যাটারী
  • ক্যামেরাঃ পিছন ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে চারটি ক্যামেরা ১২+৮+২+২ মেগাপিক্সেল। এবং সামন ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৮ মেগা পিক্সেলের একটি ক্যামেরা।
  • ডিসপ্লেঃ এর ডিসপ্লে ৬.৫২ ইঞ্চি।

আমাদের শেষ কথা,

কম দামে ভালো ফোন, কম দামে সেরা ফোন ,vivo কম দামে ভালো ফোন, কম দামে ভালো গেমিং ফোন , কম দামে ভালো ফোন ২০২১ এর পোষ্টটি কেমন লাগলো? কোনো তথ্য ভুল হলে দয়া করে জানাবেন।ভালো থাকবেন।

 

>>>>Related Articles<<<<

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.