আমি কিভাবে ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড করব?(সহজ ৬ টি পদ্ধতি)

ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড নিয়ে অনেকেই সমস্যায় পড়েন।আজকের এই পুরো আর্টিকেল জুড়ে আমি আপনাদের অনেক কয়েকটি টিপস দিব ।যার মাধ্যমে আপনি ইউটিউব এর যেকোনো ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। how to download youtube video in pc (bangla) এবং জেনে নিন মোবাইলে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার পদ্ধতি।

সাধারণত ইউটিউব অফিশিয়াল ভিডিওগুলোকে ডাউনলোড করার সুবিধা দেয় না। যার ফলে আমরা আমাদের পছন্দের ভিডিও গুলোও মাঝে মাঝে ডাউনলোড করতে পারিনা।

এ ছাড়াও অনেকে ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড অ্যাপস খুঁজে থাকে। কেউ কেউ হয়তো কাঙ্ক্ষিত অ্যাপস খুঁজে পায়। তবে আমার মতে অধিকাংশই ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড আপ্প খুঁজে পায়না।

আপনি কি চিন্তা করছেন এই পোস্ট পড়ে আমি ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পাবো কিনা। ভাই আপনাকে বলছি কোন চিন্তা করবেন না। আমি শুধু ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোডার সফটওয়্যার আপনাদের দিবনা। সেই সাথে অতিরিক্ত টিপস হিসেবে অন্তত তিনটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে বলব যেগুলো দিয়ে মাত্র কয়েক ক্লিকে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। এখন আসি অন্য কথায়।

ইউটিউবে অফিশিয়াল ভিডিও ডাউনলোড করা যায় না কেন?

অনেকেই বলেন ইউটিউব কেন অফিশিয়াল ভিডিও ডাউনলোড করতে দেয় না? ফোনের ইউটিউব সফটওয়্যার দিয়ে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করা যায় না কেন? ইত্যাদি ইত্যাদি। আসলে এখানে ইউটিউব তার প্রাইভেসি রক্ষার্থে অফিশিয়াল ভিডিও গুলো ডাউনলোড করার সুবিধা দেয় না।

এখানে অফিসিয়াল ভিডিও বলতে যে ভিডিওটা ইউনিক অর্থাৎ কোন কতৃপক্ষ যখন প্রথম কোন একটা ভিডিও আপলোড দেয় কোন ট্রেন্ডিং বিষয় সম্পর্কে তাহলে সেটা হয়ে যায় অফিশিয়াল ভিডিও। ইউটিউব চ্যানেলের মালিকেরাই এসব ভিডিও কি অফিশিয়াল করে আপলোড দেয়। যাতে তাদের এই ইউনিক কাজকর্ম চুরি হতে না পারে।

ইউটিউব যদিও এসব ভিডিও ডাউনলোড করার সুবিধা দিত তাহলে খুব সহজেই মানুষ এসব ভিডিও ডাউনলোড করে নিজের নামে প্রচার করতে পারতো। এবং বলতে পারত যে এই ভিডিও আমি তৈরি করেছি, পুরো কৃতিত্ব আমার। তাই ইউটিউব কর্তৃপক্ষ চ্যানেলের সিকিউরিটি সাথে এবং তাদের প্রাইভেসি অনুযায়ী অফিশিয়াল ভিডিওগুলোকে ডাউনলোড করতে দেয় না।

তবে দুনিয়াতে এক্সপার্ট লোকের সংখ্যাও কম নয়। তারা অলরেডি এসব ভিডিও ডাউনলোড করার টুল বের করে ফেলেছে। তারাই অংশ হিসেবে আমরা বিভিন্ন ইউটিউব ডাউনলোডার সফটওয়্যার এবং বিভিন্ন ডাউনলোডের ওয়েবসাইট দেখে থাকি। যেগুলো দিয়ে খুব সহজেই আমরা যেকোনো ধরনের অফিশিয়াল কিংবা non-official ভিডিও সহজেই ডাউনলোড করতে পারি।

ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড।

আমি প্রথমে অতিরিক্ত টিপস হিসেবে যে তিনটি ওয়েবসাইট দিতে চেয়েছিলাম সেগুলোই আগে বলছি। এর কারণ হচ্ছে কোন সফটওয়্যার ডাউনলোড দিয়ে তারপর ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার চেয়ে ওয়েবসাইটে গিয়ে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করা খুব সহজ এবং খুব কম সময়ের দরকার হয়। নিচে তিনটি ওয়েবসাইটের নাম দেওয়া হল।

BTclud.com

আমাদের তালিকার প্রথম ওয়েবসাইট হচ্ছে এটি। আমার মতে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার সবচেয়ে সহজ ওয়েবসাইট হচ্ছে এটি। এ ওয়েবসাইটটিতে ডাউনলোড করা এত সহজ যে একজন অশিক্ষিত মানুষ ভুলক্রমে ডাউনলোড করে ফেলবে। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো যে এই ওয়েবসাইটটি সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড সুবিধা প্রদান করে থাকে এবং এই ওয়েবসাইটটিতে গুগল এডসেন্সের এড ব্যবহার করা হয়। আমরা জানি এডসেন্সের এড থেকে মুক্তি পাওয়া খুব সোজা। তার অ্যাডসেন্স বাদে অন্যান্য ব্যবহার করলে আপনাকে খুব বেগ পেতে হবে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিভাবে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করবেন তা জানার আগে আগে জেনে নিন ওয়েবসাইটের ফিচার সম্পর্কে।

  • সম্পূর্ন ফ্রীতে ডাউনলোড করার সুবিধা।
  • বিভিন্ন পিকচার ভিডিও ডাউনলোড করার সুবিধা।
  • সাময়িকভাবে এড দেখার যন্ত্রনা খুবই কম এই ওয়েবসাইটে। অর্থাৎ এই ওয়েবসাইট এড দেখায় না বললেই চলে।
  • অডিও‌ বা 3gp ডাউনলোড করার সুবিধা দেয় এই ওয়েবসাইট।
  • আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইটটি দিয়ে ইউটিউব এর পুরো একটি প্লেলিস্টের সব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • সহজে ব্যবহারযোগ্য।
  • দ্রুত ডাউনলোডিং স্পিড।
  • এখন আসি কিভাবে Btclud.com থেকে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করবেন ?

। প্রথমে ইউটিউব অ্যাপস কিংবা ইউটিউব এর ওয়েবসাইটে আপনার পছন্দের ভিডিও তে গিয়ে ঢুকুন। তারপর সেখানে ভিডিও নিচের শেয়ার বাটন এ ক্লিক করুন। শেয়ার বাটন এ ক্লিক করার পর শেয়ার হওয়ার অপশন আসবে। সেখানে সবার উপরে বাম পাশে কোনায় কপি লিনক নামে একটি অপশন থাকবে। সেখানে ক্লিক করে ভিডিও লিংকটি কপি করে নিন।

। এরপর আপনি আপনার মোবাইলের যে কোন ব্রাউজার এ গিয়ে সার্চ বারে টাইপ করুন btclod.com । এরপর আপনার ব্রাউজারে একটি ইন্টারফেস ওপেন হবে যা দেখতে অনেকটা নিচের স্ক্রীনশটএর মত।

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

উপরের স্ক্রিনশট টিতে যে ফাকা বক্সে দেখা যাচ্ছে সেখানে আপনার কপিকৃত লিংকটা পেস্ট করুন। এবং লিংক পেস্ট করার পর সার্চ বাটনে ক্লিক করুন। দেখবেন অটোমেটিক সেই ভিডিও আপনার মোবাইল বা ডেস্কটপ ইন্টারফেস এর সামনে হাজির হয়ে গেল। এখানে আপনাকে ভিডিওটি কনভার্ট করার মত অতিরিক্ত কাজটি করতে হবে না। লিংক দিয়ে সার্চ দেওয়ার পর অটোমেটিক সেই ভিডিওটি অডিও-ভিডিও হিসেবে কনভার্ট হয়ে আপনার সামনে আসবে। তো সার্চ বাটন এ ক্লিক দেওয়ার পর নিচের মত একটি ইন্টারফেস দেখাবে।

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

এখান থেকে আপনি যেকোন ভিডিও পিক্সএল সিলেক্ট করতে পারবেন কিংবা অডিও বা mp3 সিলেক্ট করতে পারবেন। সিলেক্ট করে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করলেই নিচের মত আরো একটি ইন্টারফেস দেখাবে।

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

এখান থেকে “download now” এ ক্লিক করলেই আপনার পছন্দের ভিডিওটি ডাউনলোড হতে শুরু করবে। তো এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মাত্র তিনটি ক্লিক দিয়েই আপনি একটি ভিডিও ডাউনলোড করতে পারছেন।

আরো পড়ুন,

YT1S.COM

এটি বর্তমান সময়কার একটি জনপ্রিয় ডাউনলোড ওয়েবসাইট। তবে বিশেষভাবে এটিকে ইউটিউব এবং ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। অধিকাংশ youtube-video-downloader ওয়েবসাইট ইংরেজি হওয়া সত্বেও এই ওয়েবসাইটটি বাংলা ভার্সন প্রদান করে। যার ফলে যে কোন বাঙালি সেখানে গিয়ে খুব সহজেই ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই ওয়েবসাইটের সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড করার সুবিধা প্রদান করে। যেহেতু ফ্রিতে ডাউনলোড করার সুবিধা দেয় তাই এখানে খুব বেশি পরিমাণে এড দেখায়। তবে চিন্তা করবেন না আমি আপনাদের একটা পদ্ধতি বলে দেব যার ফলে আপনি খুব সহজেই এবং খুব দ্রুত ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। আগে বলি এই ওয়েবসাইটটিতে ডাউনলোড করার সুবিধা গুলো কি কি?

  • এটি সম্পূর্ন ফ্রিতে ডাউনলোড সুবিধা প্রদান করে
  • সকল ধরনের ভিডিও ফরমেট সহ মোট চার ধরনের অডিও ফরমেট ডাউনলোড করার সুবিধা দেয়।
  • এই ওয়েবসাইটটি স্মুথ ডাউনলোড স্পিড দেয়।
  • মাত্র তিনটি ক্লিকেই একটি ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করা যায়।
  • ডাউনলোডকৃত ভিডিও বা অডিও ফাইল সরাসরি মেমোরিতে নিতে পারবেন।
  • ইউটিউব ভিডিওগুলোকে 3gp এবং অডিও তে রূপান্তরিত করে ডাউনলোড করা যায়।
  • এ ডাউনলোড ওয়েবসাইট ব্যবহার করে যত খুশি ততবার যেকোনো ধরনের ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করা যায়।

Yt1s.com থেকে কিভাবে ভিডিও ডাউনলোড করবেন?

১। প্রথমে ইউটিউব অ্যাপস কিংবা ইউটিউব এর ওয়েবসাইটে আপনার পছন্দের ভিডিও তে গিয়ে ঢুকুন। তারপর সেখানে ভিডিও নিচের শেয়ার বাটন এ ক্লিক করুন। শেয়ার বাটন এ ক্লিক করার পর শেয়ার হওয়ার অপশন আসবে। সেখানে সবার উপরে বাম পাশে কোনায় কপি লিনক নামে একটি অপশন থাকবে। সেখানে ক্লিক করে ভিডিও লিংকটি কপি করে নিন।

২। এরপর আপনার ফোন কিংবা ডেক্সটপ এর যেকোন ব্রাউজারে ঢুকতে হবে। ব্রাউজার এ ঢুকে সার্চ বারে টাইপ করুন yt1s.com । এরপর সেই ওয়েবসাইটে ঢুকে নিচের মত একটি স্ক্রিন দেখতে পাবেন।

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

ওয়েব সাইটে ঢোকার পর আপনার কপিকৃত লিংকটা যথাস্থানে paste করুন এবং convert লেখাটিতে চাপ দিন। এরপর আপনি আরেকটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন। নিচে দেখুন,

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

এখানে আপনাকে কিছু অপশন দিচ্ছে ভিডিও কনভার্ট করার জন্য। আপনি যদি ভিডিও টাকে mp4a না রেখে বিভিন্ন pixel এ নিতে চান কিংবা অডিও করে নিতে চান তাহলে mp4 video তে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পর সেখানে পছন্দমত বিভিন্ন পিক্সএল থেকে একটি সিলেক্ট করে নিন। মনে রাখবেন mp4 ভিডিও তে ক্লিক দেওয়ার পর আপনাকে এই ওয়েবসাইট থেকে অন্য ওয়েবসাইটে নিয়ে যেতে পারে। আপনাকে অন্য ওয়েবসাইটে নিয়ে গেলে বুঝবেন যে আপনাকে অ্যাড দেখানো হচ্ছে। তাই সাথে সাথে ব্যাক বাটন এ ক্লিক করে আবার পূর্বের ওয়েবসাইট এ ফিরে আসবেন। এ ব্যাপারটি ঘটতে পারে প্রায় সব ক্ষেত্রেই। আপনি যখন প্রথমে লিংক পেস্ট করে কনভার্ট এ ক্লিক দিবেন তখনো আপনাকে অন্য ওয়েবসাইটে নিয়ে যেতে পারে। যখন ঐ কোন ওয়েবসাইটে নিয়ে যাবে আপনাকে তখন এই ব্যাক বাটন এ ক্লিক করে ফিরে আসবেন।

এরপর পছন্দমত পিক্সএল সিলেট করার get link ক্লিক করুন। আগের মতো এবারেও আপনাকে অন্য এক সাইটে নিয়ে যেতে পারে। তাই বিভ্রান্ত হবেন না আপনাকে কোন ওয়েবসাইটে নিয়ে গেলে সাথে সাথে ব্যাক বাটন এ ক্লিক করে পূর্বের ওয়েবসাইটে ফিরে আসবেন অর্থাৎ yt1s.com এ । get link এ ক্লিক করার পর কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন এরপর আপনি দেখতে পাবেন কাঙ্খিত ডাউনলোড অপশন।

ইউটিউবে ভিডিও ডাউনলোড

এখানে ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করলেই আপনি আপনার পছন্দের ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

Y2META.COM

এই ওয়েবসাইটটি এসপেশালি ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। আগের ওয়েবসাইটটির মতো এটিও বাংলা ভার্সনে তৈরি। এই ওয়েবসাইটটি একদম সাদামাটা ডিজাইন এবং যে কেউ খুব সহজে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবে।

আগের ওয়েবসাইটটির তুলনায় এই ওয়েবসাইটটিতে খুব সহজে ডাউনলোড করা গেলেও আগের তুলনায় এটি খুব বেশি এড দেখায়। তবুও এর তুলনামূলক কিছু ফিচার রয়েছে। নিচে কিছু ফিচারঃ আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো।

  • বিশেষভাবে সাধারণ লোকেদের জন্য মানসম্মত ডিজাইনে তৈরি করা ওয়েবসাইট এটি।
  • এটিতে ডাউনলোড করার জন্য কোন নিবন্ধন এর প্রয়োজন হয় না।
  • আগের ওয়েবসাইটটির মত এটিতে ভিডিওকে কনভার্ট করতে হয়না। অটোমেটিক কনভার্ট হয়ে আপনার সামনে বিভিন্ন পিক্সএল এ চলে আসবে।
  • স্মুথ ডাউনলোড স্পিড

Y2meta.com ডাউনলোডের ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করবেন?

। আগের নিয়ম অনুযায়ী আপনাকে আপনার পছন্দের ইউটিউব ভিডিওর লিংকটি কপি করতে হবে। সেজন্য অবশ্যই আপনাকে ব্রাউজার কিংবা ইউটিউব অ্যাপস ব্যবহার করতে হবে।

। পছন্দ ইউটিউব ভিডিওর লিংক কপি করার পর যে কোন একটি ব্রাউজার এ ঢুকে সার্চ বারে উপরি-উক্ত ওয়েবসাইটের লিংক টাইপ করুন এবং সেখানে প্রবেশ করুন। প্রবেশ করলে আপনি নিচের মত একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড

এখানে আপনি আপনার পছন্দের ইউটিউব ভিডিওর লিংকটি পেস্ট করুন এবং ডান পাশে তীর চিহ্ন বাটনটিতে ক্লিক করুন। এরপর অটোমেটিক বিভিন্ন পিক্সএল এ ভিডিওটি রূপান্তরিত হয়ে আপনার সামনে আসবে। নিচে ইন্টারফেসটি দেখুন।

ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড

এরপর এখানে আপনি আপনার পছন্দের যেকোন পিক্সেলের ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি যেই পিকচারের ভিডিও ডাউনলোড করতে চান সেই পিক্সেলের ডানপাশের ডাউনলোড লেখাটিতে ক্লিক করুন। জেনে রাখবেন আগের মত এই ওয়েবসাইটটিতে আপনাকে অ্যাড শো করার জন্য অন্য ওয়েবসাইটে নিয়ে যেতে পারে। তাই বিভ্রান্ত না হয়ে, সামান্য একটু কষ্ট করে ব্যাক বাটন এ ক্লিক করলেই হয়ে যাবে।

ডাউনলোড লেখাটিতে ক্লিক করলে নিচের মত একটি পেজ আসবে।

এখান থেকে আবার ডাউনলোড লেখাটিতে ক্লিক করলেই আপনি আপনার ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

সফটওয়্যার দিয়ে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড।

আমাদের কথামত আমরা আপনাদের অতিরিক্ত টিপস হিসেবে তিনটি ওয়েবসাইট এর ঠিকানা বলে দিয়েছি। এখন আমি আমার মূল পোস্টের বিষয়বস্তু অনুযায়ী তিনটি সফটওয়্যারের নাম বলে দেব যেগুলো দিয়ে আপনি খুব সহজেই বিভিন্ন পিক্সেল এর ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড দিতে পারবেন। এই সফটওয়্যার গুলো মূলত ডিজাইন করা হয়েছে ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য। তবে শুধু ইউটিউব ভিডিও যে এই ডাউনলোডার সফটওয়্যার গুলো দিয়ে ডাউনলোড করা যায় তা নয় বরং সব ধরনের ব্লক ওয়েবসাইট থেকে ভিডিও ডাউনলোড করার সুবিধা প্রদান করে এই ডাউনলোডার সফটওয়্যার গুলো।

Snaptube Video Downloader

আমাদের তালিকার প্রথম ডাউনলোডার সফটওয়্যার হচ্ছে এটি। উল্লেখ্য যে আমাদের পরিচিত ভিটমেট ডাউনলোড সফটওয়্যার থেকেও এটি বেশি কার্যকরী। এটি ভিটমেট ডাউনলোডার সফটওয়্যার থেকে তুলনামূলক কম অ্যাড শো করে থাকে। নিচে এই স্নাপটিউব ভিডিও ডাউনলোডার অ্যাপ এর কিছু ফিচার তুলে ধরা হলো:

  • অতি সাধারন মানের ডিজাইন
  • আনলিমিটেড ডাউনলোড স্পিড
  • এড যন্ত্রণা খুবই কম
  • সব ধরনের ব্লক ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করার সুবিধা।
  • ইউটিউব ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম টুইটারসহ সব ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ডাউনলোড করার সুবিধা।
  • যেহেতু এটি একটি ব্রাউজার হিসেবে কাজ করে তাই এটির মাধ্যমে যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইটে ঢুকে সেখানকার ভিডিও ডাউনলোড করা যায়।

Snaptube দিয়ে কিভাবে ভিডিও ডাউনলোড করবেন?

Snaptube দিয়ে ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য এই সফটওয়ার টি আপনার ডিভাইসে ইনস্টল করা থাওতে হবে।কিন্তু যদি না থাকে তাহলে এই এপ্স টি ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিতে হবে।তবে দুঃখের বিষয় এই যে স্নাপ্টিউব এপ্স গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যায় না।

এই এপ্স টি অনেকের কাছে বিশ্বাস যোগ্য নাও হতে পারে।তবে আমি ব্যাক্তিগত ভাবে বলছি যে আমি এই এপ্স টি দীর্ঘদি যাবত ব্যবহার করে আসছি।আমার কোনো ধরনের সমস্যা হয়নি এখনো।

আপনারা যারা snaptube ডাউনলোড করতে চান তারা এই লেখায় ক্লিক করুন।Download Snaptube 

ডাউনলোড করার পর ইনস্টল করে নিন। তারপর নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

১। যেহেতু আপনি ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করবেন তাই আপনাকে খুব বেশী কিছু করতে হবে না। আগে এপ্সটি খুলে যে ইন্টারফেসটি দেখতে পাবেন তা নিচে,

 

এখানে স্কিনশট অনুযায়ী বামপাশের উপরের দিকে ইউটিউব এর লোগো দেখতে পাচ্ছেন। সেখানে ক্লিক করে আপনি ইউটিউব এ যেতে পারেন এবং সেখান থেকে আপনি সার্চ করে আপনার পছন্দের ভিডিও ডাউনলোড করতে পারেন।

অথবা ইউটিউবে গিয়ে আপনার পছন্দের ভিডিওর লিংক কপি করে এখানে যে সার্চ বার আছে সেখানে পেস্ট করে কাঙ্কিত স্থানে পৌছাতে পারেন। তবে সেই ভিডিও তে ঢুকার পর বাম পাশে নিচে একটি হলুদ রংয়ের ডাউনলোড বাটন দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করে আপনি আপনার ইচ্ছামতো যেকোনো পিক্সএল এ ভিডিওটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আরো পড়ুন

Vidmate VIDEO DOWNLOADER

এটিকে আমাদের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রাখলাম তুলনামূলক ফিচার কম থাকার কারণে। যদিও এটি বেশি অ্যাড দেখায় তবুও কেন জানি বাঙ্গালীদের কাছে এই সফটওয়্যারটি অধিক জনপ্রিয়। ডাউনলোড করার জন্য এই সফটওয়্যার বহুলভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

ভিটমেট দিয়ে কিভাবে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করব?

স্নাপটিউব এর মত এটি ও কাজ করে। এই ডাউনলোড দিয়ে ডাউনলোড করার জন্য অবশ্যই আপনাকে এটি ইন্সটল করতে হবে। এটি যদি ইনস্টল না থাকে তাহলে আপনাকে ইনস্টল করে নিতে হবে। তবে এই অ্যাপসের যে অরিজিনাল ভার্সন রয়েছে তা আপনি প্লে স্টোরে খুঁজে পাবেন না। তাই আপনাকে ভিটমেট অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে ডাউনলোড করতে হবে। আপনারা যারা ডেক্সটপ ব্যবহার করেন তারাও এই সফটওয়্যারটি ভিটমেট অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনাদের সুবিধার্থে আমি ভিটমেট অ্যাপস ডাউনলোড করার লিংক দিয়ে দিচ্ছি।Download vidmate apps 

ডাউনলোড করার জন্য যে পদ্ধতিতে আমি স্নাপটিউব এর বেলায় বলেছি ঠিক একই পদ্ধতি এর ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। ভিটমেট অ্যাপস ইন্সটল করে ওপেন করতে হবে এবং ইউটিউব আইকন এ ক্লিক করতে হবে। তারপর ইউটিউবে ঢুকে আপনার পছন্দের ভিডিও সার্চ করে ডাউনলোড করে নিতে হবে। তবে আপনি যদি এভাবে না করে ইউটিউব থেকে লিংক কপি করে সার্চ বারে পেস্ট করেন তাও হবে। মূলত এই ভিটমেট এর আসল কার্যকারিতা হচ্ছে এটি খুব ভালোভাবে কনভার্ট করতে পারে।

YouTube go

এটি ইউটিউব এর অফিসিয়ালি দেওয়া একটি সফটওয়্যার যার মাধ্যমে বিশেষ কিছু অফিশিয়াল ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করা সম্ভব হয়। কিছু পরিমাণ অফিশিয়াল ভিডিও ডাউনলোড করা গেলেও অধিকাংশ অফিশিয়াল ভিডিও ডাউনলোড করা যায় না। তবে আপনারা যারা উপরিউক্ত ওয়েবসাইট এবং ডাউনলোডার গুলোকে ট্রাস্ট বা বিশ্বাস করতে পারছেন না তারা এই ইউটিউব এর অফিশিয়াল ডাউনলোডার সফটওয়্যারটি ইনস্টল করে নিতে পারেন।

ইনস্টল করার জন্য আপনাকে প্লে স্টোরে যেতে হবে এবং ইউটিউব গো লিখে সার্চ দিলে কাঙ্খিত সফটওয়্যারটি পাবেন। অথবা আমাদের দেওয়া এই লিংকে ক্লিক করুন

আমাদের শেষ কথা,

আজকের এই পোস্টে আমি যথাসম্ভব চেষ্টা করেছি ইউটুবে ভিডিও ডাউনলোড করার পদ্ধতি সম্পর্কে জানাতে। এই পদ্ধতির অংশ হিসেবে আমি আপনাদের বলে দিয়েছি কিভাবে ওয়েবসাইট দিয়ে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করব? কিভাবে সফটওয়্যার দিয়ে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করব? ইত্যাদি । আশা করি আমাদের পুরো পোস্টটি তথ্যবহুল ছিল ।যদি কেউ মন দিয়ে এই পোষ্টটি পড়ে থাকে তাহলে সে নিশ্চয়ই ইউটিউব ভিডিও খুব সহজেই ডাউনলোড করতে পারবে ইনশাআল্লাহ।

আজকের মত এ পর্যন্তই। আমাদের এই পোস্টটি অবশ্যই শেয়ার করবেন। এবং ভালো থাকবেন।

>>>>Related Articles<<<<

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.